চীনে শক্তিশালী টাইফুনের আঘাত, নিরাপদ আশ্রয়ে ২ লক্ষাধিক মানুষ

চীনে শক্তিশালী টাইফুনের আঘাত, নিরাপদ আশ্রয়ে ২ লক্ষাধিক মানুষ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

চীনে আঘাত হেনেছে শক্তিশালী টাইফুন তালিম। সোমবার (১৭ জুলাই) দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় গুয়ানডং প্রদেশে এই টাইফুন আঘাত হানে এবং এর জেরে প্রায় ২ লাখ ৩০ হাজার মানুষকে তাদের বাড়িঘর থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়।

চলতি বছর এটি চীনে আঘাত হানা চতুর্থ টাইফুন এবং দেশটির দক্ষিণ উপকূলে আছড়ে পড়ার সময় বাতাসের গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় প্রায় ১৪০ কিলোমিটার (৮৭ মাইল)। মঙ্গলবার (১৮ জুলাই) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শক্তিশালী এই ঝড় উপকূলে আঘাত হানার সময় প্রচণ্ড বাতাস এবং বৃষ্টি হয় এবং এর জেরে শত শত ফ্লাইট ও ট্রেন বাতিল করে কর্তৃপক্ষ।

অন্যদিকে ভিয়েতনাম জানিয়েছিল, কুয়াং নিন এবং হাই ফং থেকে তারা প্রায় ৩০ হাজার লোককে সরিয়ে নিচ্ছে। এই দু’টি এলাকা টাইফুন তালিমের আঘাতে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার পূর্বাভাস ছিল।

বিবিসি বলছে, তালিম স্থানীয় সময় ১০টা ২০ মিনিটের দিকে আঘাত হানে। চীনের আবহাওয়া প্রশাসন বলেছে, দুর্যোগের জেরে তারা কমলা সতর্কতা জারি করেছিল। চার-স্তরের সতর্কতা ব্যবস্থার মধ্যে এটি দ্বিতীয় সর্বোচ্চ সতর্কতা।

চীনের এই প্রশাসন আরও বলেছে, টাইফুনটি মঙ্গলবার সকালের মধ্যে গতি হারাতে পারে এবং বুধবার ‘উত্তর ভিয়েতনামের দিকে এগোনের সাথে সাথে দুর্বল হয়ে পড়তে পারে।’

চীনের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম বলছে, গুয়ানডং থেকে যাদের সরিয়ে নেওয়া হয়েছে তাদের মধ্যে ৮ হাজারেরও বেশি মাছ-খামার শ্রমিক রয়েছেন যাদের উপকূলে নিয়ে আসা হয়েছে। এছাড়া স্থানীয় কর্তৃপক্ষ কয়েক ডজন উপকূলীয় পর্যটন কেন্দ্র বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছে।

চীনের জাতীয় আবহাওয়া কেন্দ্র জানিয়েছে, টাইফুনটি এখন দক্ষিণ চীন সাগরের বেইবু উপসাগরে চলে যাবে এবং মঙ্গলবার সকালে স্বায়ত্তশাসিত গুয়াংজি ঝুয়াং অঞ্চলের উপকূলীয় এলাকার স্থলভাগে দ্বিতীয় দফায় আছড়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

এছাড়া এই টাইফুনের জেরে ছয় মিটার (২০ ফুট) পর্যন্ত উচু ঢেউ দক্ষিণাঞ্চলীয় দ্বীপ প্রদেশ হাইনানে আঘাত হানতে পারে বলে স্থানীয় সামুদ্রিক পূর্বাভাস কেন্দ্র সতর্ক করে দিয়েছে।


কমেন্ট As:

কমেন্ট (0)